ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৪ মে ২০২২ ||  জ্যৈষ্ঠ ১০ ১৪২৯

গত ১০ দিনে কোভিড আক্রান্ত বেশিরভাগের শরীরেই ওমিক্রন

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৯:৫৭, ১৮ জানুয়ারি ২০২২  

ছবিঃ সংগৃহীত

ছবিঃ সংগৃহীত

গত ১০ দিনে কোভিড আক্রান্ত বেশিরভাগের শরীরেই ওমিক্রন

রাজধানীতে গত ১০ দিনে করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের ৬৯% নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনে আক্রান্ত বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক

প্রকাশিত: ০৫:১২ বিকাল জানুয়ারি ১৭, ২০২২

রাজধানীতে গত ১০ দিনে করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের ৬৯% নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনে আক্রান্ত বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক। তিনি বলেন, “আমরা করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা এবং জিনোম সিকোয়েন্স করে দেখেছি, ঢাকায় ওমিক্রন এখন ৬৯%-এ উন্নীত হয়েছে। যেটা ১৩% ছিল। গত ১০ দিনের মধ্যে আমরা এ তথ্য পেয়েছি।”

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) সচিবালয়ে এ কথা জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

তিনি আরও বলেন, “ঢাকায় আক্রান্তদের নমুনা পরীক্ষা করে আমরা এই তথ্য পেয়েছি। আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকায় সরকার চিন্তিত। তাই সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার অনুরোধ করছি।”

ডেল্টা এবং ওমিক্রনে আক্রান্তদের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, “আমরা কিছুটা হলেও চিন্তিত এবং আতঙ্কিত। গত ১৫ দিনে ১৮%-এ চলে এসেছে শনাক্তের হার। করোনাভাইরাস যেভাবে বাড়ছে তাতে শনাক্তের হার ৩০% ছাড়িয়ে যেতে বেশি সময় লাগবে না।”তিনি আরও বলেন, “হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। এভাবে বাড়তে থাকলে আগামী এক-দেড় মাসের মধ্যে হাসপাতালে জায়গা থাকবে না। তখন চিকিৎসা দেওয়া কঠিন হয়ে যাবে। এ জন্য সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার অনুরোধ করছি।”এর আগে গত বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে জাহিদ মালেক বলেছিলেন, করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের ১৫% থেকে ২০%-ই নতুন ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত। একইদিনে ঢাকার বাইরে প্রথম ওমিক্রন শনাক্তের খবর দেয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

‘৮০% কোভিড রোগী ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত’

দেশে এখন পর্যন্ত ৮০%-এর বেশি মানুষ ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা

প্রকাশিত: ১১:০৫ রাত জানুয়ারি ১৭, ২০২২

দেশে এখন পর্যন্ত ৮০%-এর বেশি মানুষ ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাশার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম। তিনি বলেন, “আইডিসিআরের যে তথ্য আছে তাতে দেখা যাচ্ছে ঢাকা শহরে ওমিক্রনের হার বেশি। অন্য শহরে কম।”

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সম্মেলন কক্ষে কোভিড-১৯ এর বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে আয়োজিত এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

ডা. আবুল বাশার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম বলেন, “এখন পর্যন্ত সামগ্রিক বিচারে ডেল্টা ভাইরাসের সংক্রমণের সংখ্যা ৮০%-এর ওপরে। দুই সপ্তাহ আগেও যে সংক্রমণের হার ২%-এর নিচে ছিল সেটা আজকের হিসেবে ২০.৮৮%। ওমিক্রনের সংক্রমণ আগের চেয়ে বেড়েছে। তবে এখন পর্যন্ত সংক্রমণ হচ্ছে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে বেশি। ঢাকার বাইরে ওমিক্রনের প্রাদুর্ভাব নেই বললেই চলে। তবে ঢাকায় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট বেশি প্রাধান্য বিস্তার করছে।”

সংক্রমণের হার বেড়ে যাওয়াকে “একটা অশুভ ইঙ্গিত” বলে তিনি মন্তব্য করেন। তিনি মন্ত্রীপরিষদ থেকে যে ১১-দফা নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে সেগুলো মেনে চলার অনুরোধ জানান।

তিনি আরও বলেন, “কোনো হাসপাতাল বন্ধ করা হয়নি। বিছানাগুলো অন্য রোগীদের জন্য ব্যবহার করা হচ্ছিল। তবে সংক্রমণ বাড়ার কারণে বিছানাগুলো আবারও প্রস্তুত করা হয়েছে। সক্ষমতার একটা সীমাবদ্ধতা আছে। হাসপাতাল, চিকিৎসক এবং নার্সের চেয়ে যদি রোগী বেড়ে যায় তাহলে সেটা সামাল দেওয়া কষ্টকর এবং দূরহ হয়ে যাবে।”

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক জানান, বুস্টার ডোজের টিকার বয়স ৬০ বা তার বেশি বয়স থেকে কমিয়ে ৫০ বছর করা হয়েছে সাধারণ মানুষের ক্ষেত্রে। তবে যারা সম্মুখসারিতে কর্মরত তাদের কোনো বয়সসীমা নেই।

ঢাকার বাইরে পরীক্ষার বিষয়ে অতিরিক্ত মহাপরিচালক ডা. সেব্রিনা ফ্লোরা সাংবাদিকদের বলেন, “শুধু পরীক্ষা ও শনাক্ত করলেই চলবে না। রাজধানীসহ সারা দেশে এক স্থান থেকে আরেক স্থানে বহু মানুষ প্রতিদিন যাতায়াত করছে। এতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে।”

তিনি আরও বলেন, “এখনও পর্যন্ত কোনো লকডাউন আদেশ জারি করা হয়নি, তবে সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে।”

এর আগে সোমবার বিকেলে সচিবালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, “ঢাকায় আক্রান্তদের নমুনা পরীক্ষা করে আমরা জানতে পেরেছি, রাজধানীতে গত ১০ দিনে করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের ৬৯% নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনে আক্রান্ত।”

তিনি বলেন, “আমরা করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা এবং জিনোম সিকোয়েন্স করে দেখেছি, ঢাকায় ওমিক্রন এখন ৬৯%-এ উন্নীত হয়েছে। যেটা ১৩% ছিল। গত ১০ দিনের মধ্যে আমরা এ তথ্য পেয়েছি।”

ডেল্টা এবং ওমিক্রনে আক্রান্তদের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, “আমরা কিছুটা হলেও চিন্তিত এবং আতঙ্কিত। গত ১৫ দিনে ১৮%-এ চলে এসেছে শনাক্তের হার। করোনাভাইরাস যেভাবে বাড়ছে তাতে শনাক্তের হার ৩০% ছাড়িয়ে যেতে বেশি সময় লাগবে না।”

করোনাভাইরাস

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ৫ ডিসি ও ২ বিভাগীয় কমিশনার

মঙ্গলবার থেকে ঢাকায় শুরু হতে যাওয়া তিনদিনের ডিসি কন

প্রকাশিত: ০৮:৪৮ রাত জানুয়ারি ১৭, ২০২২

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন পাঁচ জেলা প্রশাসক এবং দুই বিভাগীয় কমিশনার। এর মধ্যে রাজশাহী ওবরিশাল বিভাগের দুই বিভাগীয় কমিশনার এবং কক্সবাজার, চুয়াডাঙ্গা, পটুয়াখালী, লক্ষ্মীপুর ও রাজশাহী বিভাগের পাঁচ জেলা প্রশাসক রয়েছেন।

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

মঙ্গলবার থেকে ঢাকায় শুরু হতে যাওয়া তিনদিনের ডিসি কনফারেন্সে আক্রান্ত সকলের যোগদানের কথা ছিল।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, “সম্মেলনে যোগদানের আগে সব ডিসি এবং গণ্যমান্যদের আরটি-পিসিআর পরীক্ষা করতে বলা হয়েছে। ডিসি সম্মেলন ইতোমধ্যে পাঁচ দিনের পরিবর্তে তিনদিন করা হয়েছে। তাছাড়া মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সভা কক্ষের পরিবর্তে ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে অনুষ্ঠানটি অনুষ্ঠিত হবে।”

করোনাভাইরাস

রাজধানীতে প্রশিক্ষণ নিতে আসা ২২ বিচারক কোভিড আক্রান্ত

প্রশিক্ষণ নিতে আসা দেশের বিভিন্ন আদালতের সহকারী জজ ও বিচারিক হাকিম পদমর্যাদার ২২ জন বিচারক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন

প্রকাশিত: ০৫:৫১ বিকাল জানুয়ারি ১৭, ২০২২

রাজধানীর জাতীয় বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে প্রশিক্ষণ নিতে আসা দেশের বিভিন্ন আদালতের সহকারী জজ ও বিচারিক হাকিম পদমর্যাদার ২২ জন বিচারক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তারা সবাই ৪৩ ও ৪৪তম বুনিয়াদি প্রশিক্ষণে অংশ নিতে এসেছিলেন।

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) ইনস্টিটিউটের পরিচালক (প্রশিক্ষণ) মো. গোলাম কিবরিয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বিচারকদের কোভিড পজিটিভ হওয়ায় অসমাপ্ত রেখেই দুই মাসের প্রশিক্ষণ কর্মশালা স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে। একইসঙ্গে এই ২২ বিচারককে বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে আইসোলশনে রাখা হয়েছে।

মো. গোলাম কিবরিয়া জানান, ২২ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় তাদেরকে বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। একই সঙ্গে প্রশিক্ষণ কর্মসূচি পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে।

জানা গেছে, গত ৯ জানুয়ারি দেশের বিভিন্ন আদালতে সহকারী জজ ও বিচারিক হাকিম হিসেবে দায়িত্বপালনকারী ৭০ জন সহকারী জজের দুই মাসব্যাপী প্রশিক্ষণ শুরু হয়। পৃথক দুটি ব্যাচে ৩৫ জন করে অংশ নেন। প্রশিক্ষণ চলাকালে পাঁচ জন সহকারী জজের করোনাভাইরাসের উপসর্গ দেখা দেয়। পরে তাদের করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষার প্রতিবেদনে সবারই কোভিড পজিটিভ আসে। এরপর প্রশিক্ষণে অংশ নিতে আসা সব বিচারকদের কোভিড টেস্ট করা হলে তাদের মধ্যে থেকে আরও ১৭ জনের প্রতিবেদন পজিটিভ আসে। এ পরিস্থিতিতে দুই মাসের প্রশিক্ষণ কর্মশালা অসমাপ্ত রেখেই গত ১৫ জানুয়ারি স্থগিত ঘোষণা করা হয়।

করোনাভাইরাস

২৪ ঘণ্টায় ছয় হাজার ছাড়াল দেশে করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা

২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ১০ জন, শনাক্ত ৬,৬৭৬ জন, শনাক্তের হার ২০.৮৮%

প্রকাশিত: ০৫:২৭ বিকাল জানুয়ারি ১৭, ২০২২

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে দেশে এখন পর্যন্ত ২৮ হাজার ১৫৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছেন ৬ হাজার ৬৭৬ জনের দেহে। এ নিয়ে শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৬ লাখ ১৮ হাজার ৩৮৭ জনে। 

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাস থেকে সুস্থ হয়েছেন ৪২৭ জন, এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৫ লাখ ৫৩ হাজার ৩২০ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় ৩২ হাজার ৪৩১ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ৩১ হাজার ৯৮০টি নমুনা। পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ২০.৮৮%।

গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের মধ্যে ৪ জন পুরুষ, ৬ জন নারী।এর মধ্যে  ঢাকা বিভাগে মারা গেছেন ৭ জন। চট্টগ্রামে ২ ও বরিশালে ১ জন মারা গেছেন।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত অ্যাটর্নি জেনারেল

তবে তার শরীরে গুরুতর কোনো উপসর্গ নেই বলে জানা গেছে

প্রকাশিত

: ০৫:১১ বিকাল জানুয়ারি ১৭, ২০২২

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন। সোমবার (১৭ জানুয়ারি) তিনি নিজেই গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, গতকাল করোনা টেস্ট করলে রেজাল্ট পজিটিভ আসে। এখন বাসায় আইসোলশনে আছি। 

তবে কোভিড আক্রান্ত হলেও শরীরে গুরুতর কোনো উপসর্গ নেই বলে জানান অ্যাটর্নি জেনারেল।

এদিকে, রাজধানীর বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে ৪৩ ও ৪৪তম বুনিয়াদি প্রশিক্ষণে অংশ নিতে আসা ২২ জন বিচারক করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন। তারা সহকারী জজ ও জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট পদমর্যাদার বিচারিক কর্মকর্তা।

রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ ২০২০ সালের ৮ অক্টোবর এ এম আমিন উদ্দিনকে অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে নিয়োগ দেন। তিনি ২০১৯-২০২০ মেয়াদে সমিতির সভাপতি ছিলেন। সর্বশেষ ২০২০-২১ মেয়াদে তিনি সমিতির সভাপতি নির্বাচিত হন। তিনি প্রয়াত অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের সহকর্মী হিসেবে কাজ করেছেন।

করোনাভাইরাস

মহামারিতে বিশ্বের শীর্ষ ১০ ধনীর সম্পদ হয়েছে দ্বিগুণ

অক্সফামের হিসাবে নিম্নআয়ের কারণে প্রতিদিন পৃথিবীতে ২১ হাজার মানুষের মৃত্যু হচ্ছে। অন্যদিকে তাদের সম্মিলিত সম্পদ ৭০০ বিলিয়ন

থেকে বেড়ে দেড় ট্রিলিয়নে দাঁড়িয়েছে। এর মধ্যে ইলন মাস্কের সম্পদ বেড়েছে ১০০০% ও বিল গেটসের সম্পদ বেড়েছে ৩০%

প্রকাশিত: ০৪:৪১ দুপুর জানুয়ারি ১৭, ২০২২

চলমান কোভিড মহামারিতে বিশ্বব্যাপী অসংখ্য মানুষ কাজ ও সহায়-সম্বল হারিয়ে পথে বসেছে। এর সঠিক কোনো পরিসংখ্যান পাওয়া না গেলেই। তবে বিশ্বব্যাপী এমন এক বিপর্যয়ের মধ্যে কিছু মানুষ আরও ধনী হয়েছেন। বিশ্বের শীর্ষ ১০ ধনীর সম্পদের পরিমাণ দ্বিগুণ হয়েছে বলে জানিয়েছে ব্রিটিশ দাতব্য সংস্থা অক্সফাম।

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। সাধারণত দাভোসে বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের বার্ষিক সভা শুরুর আগে অক্সফাম বৈশ্বিক বৈষম্যের ওপর একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে থাকে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, আর্থিক সংকটে প্রতিদিন পৃথিবীতে ২১ হাজার মানুষের মৃত্যু হচ্ছে। অন্যদিকে, ২০২০ সালের মার্চ থেকে বিশ্বের ১০ শীর্ষ ধনীর সম্পদের পরিমাণ দ্বিগুণেরও বেশি বেড়েছে।

অক্সফামের তথ্যানুযায়ী, মহামারির প্রভাব ছাড়াই বিশ্বের ১৬ কোটি মানুষের দৈনিক আয় সাড়ে ৫ ডলারের কম (প্রায় ৪৭৪ টাকা)। বিশ্বব্যাংকের মতে, উচ্চ-মধ্যম আয়ের দেশগুলোতে যারা দৈনিক সাড়ে ৫ ডলার আয় করেন তারা দারিদ্রসীমায় আছেন।

বিশ্বখ্যাত ফোর্বস ম্যাগাজিনের বরাত দিয়ে অক্সফাম জানিয়েছে, টেসলার প্রধান নির্বাহী ইলন মাস্ক, অ্যামাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোস, ফরাসি ব্যবসায়ী বার্না আনো ও তার পরিবার, মাইক্রোসফটের সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস, ওরাকল করপোরেশনের সাবেক প্রধান নির্বাহী ল্যারি এলিসন, গুগলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেজ, রুশ ব্যবসায়ী সেরগেই ব্রিন, ফেসবুকের সহ-প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ, মার্কিন ব্যবসায়ী স্টিভ বলমার ও ওয়ারেন্ট বাফেট বর্তমানে বিশ্বের ১০ শীর্ষ ধনী ব্যক্তি। তাদের সম্মিলিত সম্পদ ৭০০ বিলিয়ন থেকে দেড় ট্রিলিয়নে দাঁড়িয়েছে। তাদের মধ্যে ইলন মাস্কের সম্পদ বেড়েছে ১ হাজার শতাংশ ও বিল গেটসের সম্পদ বেড়েছে ৩০%।

অক্সফাম গ্রেট ব্রিটেনের প্রধান নির্বাহী ড্যানি শ্রীক্ষনদারাজাহ বলেন, “এ বছর যা ঘটছে তা হিসাবের বাইরে। মহামারি চলাকালে প্রায় প্রতিদিনই একজন করে নতুন বিলিয়নিয়ার হচ্ছেন। অথচ, লকডাউনের কারণে বিশ্বের ৯৯% মানুষের আর্থিক অবস্থা আরও খারাপ হয়েছে, আন্তর্জাতিক বাণিজ্য ও পর্যটন কমেছে। ফলে, বিশ্বে ১৬ কোটি মানুষ দারিদ্র হয়েছে। এই বৈশ্বিক সংকটের মধ্যেও আমাদের বৈষম্যমূলক আর্থিক ব্যবস্থার কারণে ধনীরা আরও ধনী হচ্ছেন। কিন্তু, এই ব্যবস্থা দরিদ্রদের রক্ষা করতে ব্যর্থ হয়েছে।”

বৈশ্বিক অর্থনৈতিক ব্যবস্থায় বিশাল ত্রুটি রয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

করোনাভাইরাস

কোভিড পরীক্ষা না করায় মিমের শুটিং বাতিল

পরিবারের সদস্যদের কারও নেগেটিভ ফল না এলেও নিজে আর পরীক্ষা না করিয়ে কাজের শিডিউল দিয়েছিলেন তিনি

প্রকাশিত: ০৪:৩৭ দুপুর জানুয়ারি ১৭, ২০২২

করোনাভাইরাস পরীক্ষা না করায় ঢাকাই সিনেমার নায়িকা বিদ্যা সিনহা মিমের শুটিং বাতিল করা হয়েছে।

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) একটি বিজ্ঞাপনের জন্য শুটিং করার কথা ছিল তার। তবে পরিবারের একাধিক সদস্য করোনাভাইরাসে আক্রান্ত থাকার পরও মিম নতুন করে পরীক্ষা না করায় রবিবার রাতে নির্মাতা রনি ভৌমিক বিজ্ঞাপনটির শুটিং বাতিল করতে বাধ্য হন। 

বিজ্ঞাপনটির নির্মাণ প্রতিষ্ঠান সূত্রের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলা ট্রিবিউন।

প্রসঙ্গত, গত ৪ জানুয়ারি বিয়ে করেন মিম। বিয়ের অনুষ্ঠানের পর মিমের স্বামী সনি পোদ্দার ও বাবা বীরেন্দ্রনাথ সাহাসহ ওই অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়া অনেকেই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। তবে সেই সময়ে মিমের পরীক্ষার ফল আসে নেগেটিভ।

নতুন করে তার বা পরিবারের সদস্যদের কারও নেগেটিভ ফল না এলেও নিজে আর পরীক্ষা না করিয়ে কাজের শিডিউল দিয়েছিলেন তিনি।

এ বিষয়ে নির্মাতা রনি ভৌমিক বলেন, আমি শুনেছিলাম, “মিমের করোনাভাইরাস পরীক্ষা করা হয়েছে। পরে সংবাদমাধ্যমের বরাতে শুনলাম, ঘটনা সত্য নয়। নতুন করে তিনি টেস্ট করাননি। তাই সঙ্গে সঙ্গেই শুটিং বাতিল করি।”

কোভিডে মৃত্যু

করোনাভাইরাস

৫০ বছর হলেই নেওয়া যাবে বুস্টার ডোজ

স্বাস্থ্যমন্ত্রী  বলেন, ‘জনগণকে সরকারের ১১ দফা বিধিনিষেধ মানতে হবে। না হলে ওমিক্রন বাড়বে’

প্রকাশিত: ০৩:১৭ দুপুর জানুয়ারি ১৭, ২০২২

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে এখন থেকে ৫০ বছর বয়সীদের বুস্টার ডোজ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

তিনি বলেন, “এখন থেকে ৫০ বছর বয়স থেকে বুস্টার ডোজ দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ বিষয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন রয়েছে।

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) সচিবালয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এসব তথ্য জানান। 

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, দেশে এখন পর্যন্ত ৭ লাখ বুস্টার ডোজ দেওয়া হয়েছে। মোট সাড়ে ১৪ কোটি ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, “জনগণের প্রয়োজনের চেয়ে বেশি টিকা আছে এখন আমাদের কাছে।”

তিনি বলেন, “লাফিয়ে লাফিয়ে ওমিক্রন বাড়ছে। গত ১৫ দিনে ১৮% হয়েছে। এভাবে বাড়তে থাকলে এক- দেড় মাসে ৩০% হয়ে যাবে। এই হারে বাড়লে এক দেড় মাস পর হাসাপাতালে সিট দেয়া যাবে না।"

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ে সরকার চিন্তিত জানিয়ে জাহিদ মালেক বলেন, “সবাইকে মাস্ক পরতে হবে, স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। ডেল্টা ধরন পুরো সময়ও এত বাড়েনি। মানুষ বেপরোয়াভাবে চললে এটা বাড়তে থাকবে।"

তিনি বলেন, “জনগণকে সরকারের ১১ দফা বিধিনিষেধ মানতে হবে। না হলে ওমিক্রন বাড়বে।"

প্রসঙ্গত, এর আগে গত ২৮ ডিসেম্বর করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে রাজধানীসহ সারাদেশের সীমিত পরিসরে বুস্টার ডোজ দেওয়া শুরু হয়। শুরুতে ৬০ বছরের বেশি বয়সীদের ফাইজার হিসেবে বুস্টার ডোজ দেওয়া শুরু হয়।

কোভিডে মৃত্যু

করোনাভাইরাস

স্বাস্থ্যমন্ত্রী

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে আসাদুজ্জামান নূর

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) সকালে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি

প্

রকাশিত: ০৩:০৪ দুপুর জানুয়ারি ১৭, ২০২২

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন অভিনেতা ও সংসদ সদস্য আসাদুজ্জামান নূর। 

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) সকালে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি।

অনলাইন সংবাদমাধ্যম বাংলা ট্রিবিউনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

এর আগে, রবিবার (১৬ জানুয়ারি) তার করোনাভাইরাস পরীক্ষার ফল পজিটিভ

আসে। এনিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো করোনাভাইরাস পজিটিভ হলেন এ অভিনেতা।

সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছের বরাতে প্রতিবেদনটিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জাতীয় সংসদ অধিবেশনে যোগ দিতে নমুনা জমা দিলে তার ফল পজিটিভ আসে। পরে তিনি বাসায় চলে যান। এরপর আজ তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ভারতে টানা ৪ দিন আড়াই লাখের ওপর কোভিড শনাক্ত

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে ২ লাখ ৫৮ হাজার ৫৯ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে

প্রকাশিত: ০১:১১ দুপুর জানুয়ারি ১৭, ২০২২

ভারতে গত ৪ দিন ধরে দৈনিক করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা আড়াই লাখের নিচে নামছেই না। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে ২ লাখ ৫৮ হাজার ৫৯ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) দেশটির স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এ কথা বলা হয়েছে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম রয়টার্স এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, এ নিয়ে দেশটির ৩ কোটি ৭৩ লাখ ৫০ হাজার মানুষ এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। একই সঙ্গে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৮৫ জন এ ভাইরাসে মারা গেছেন, এনিয়ে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা ৪ লাখ ৮৬ হাজার ছাড়িয়েছে।

এর আগে গত রবিবার (১৬ জানুয়ারি) ২ লাখ ৭১ হাজার জনের শরীরে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া যায়। শনিবার (১৫ জানুয়ারি) ও শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) এ সংখ্যা ছিল যথাক্রমে ২ লাখ ৬৮ এবং ২ লাখ ৬৪ হাজার জন।

যুক্তরাষ্ট্রের জনস্ হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য অনুযায়ী, সোমবার (১৫ জানুয়ারি) সকাল পর্যন্ত আগের ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে ১৯ লাখ ৩৯ হাজার ৮৯৫ জন আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩২ কোটি ৮৭ লাখ ৭৪ হাজার ২৬৮ জন ছাড়িয়েছে। এছাড়া একই সময়ে ৩,৯৯০ মারা গেছেন। এ নিয়ে মোট মারা গেছেন ৫৫ লাখ ৫৭ হাজার ৭৩৭ জন।

করোনাভাইরাস

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত চুয়াডাঙ্গার ডিসি ও সিভিল সার্জন

রবিবার (১৬ জানুয়ারি) রাতে জেলা সিভিল সার্জন নিজেই এ তথ্য নিশ্চিত করেন 

প্রকাশিত: ১১:৫১ দুপুর জানুয়ারি ১৭, ২০২২

চুয়াডাঙ্গার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান এবং জেলা সিভিল সার্জন ডা. সাজ্জাৎ হাসান করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তবে তারা কোন ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত হয়েছেন সেটি এখনও জানা যায়নি।

রবিবার (১৬ জানুয়ারি) রাতে জেলা সিভিল সার্জন নিজেই এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

চুয়াডাঙ্গার সদর হাসপাতাল কোভিড পরীক্ষা কেন্দ্র সূত্রে জানা যায়, উপসর্গ থাকায় রবিবার দুপুর ১২টায় নবাগত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান এবং জেলা সিভিল সার্জন ডা. সাজ্জাৎ হাসান নমুনা জমা দেন। পরে র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টে তাদের নমুনায় করোনাভাইরাস ধরা পড়ে। পরে ফলাফল নিশ্চিত করতে আরটি পিসিআর টেস্টে তাদের নমুনা আরও দুবার পরীক্ষা করা হয়। সেখানেও একই ফলাফল দেখা যায়।

চুয়াডাঙ্গার সিভিল সার্জন ডা. সাজ্জাৎ হাসান বলেন, "দুপুরে করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য চুয়াডাঙ্গার জেলা প্রশাসক ও আমি নিজে নমুনা দিয়েছিলাম। বিকালে র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টে ফলাফল পজিটিভ আসে। বর্তমানে আমি নিজ বাড়ি হোম আইসোলেশনে আছি।"

উল্লেখ্য,  গত ১৩ জানুয়ারি চুয়াডাঙ্গার নবাগত জেলা প্রশাসক হিসেবে মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান এবং গত ১০ জানুয়ারি ডা. সাজ্জাৎ হাসান জেলা সিভিল সার্জন হিসেবে যোগদান করেন।

করোনাভাইরাস

কোভিড: রাজশাহী বিভাগে এ বছরে একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত

আগের দিনের তুলনায় বিভাগে নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা কমলেও শনাক্তের হার ও পরিমাণ বেড়েছে

প্রকাশিত: ১১:৪৩ দুপুর জানুয়ারি ১৭, ২০২২

রাজশাহী বিভাগে একদিনে ৭৯ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে শনাক্তের হার ১৩.৮১%, যা কি-না এ বছরে একদিনে সর্বোচ্চ। তবে এ সময়ে এ বিভাগে কারও মৃত্যু হয়নি

রবিবার (১৬ জানুয়ারি) রাজশাহী বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিপ্তরের সহকারী পরিচালক (রোগ নিয়ন্ত্রণ) নাজমা আক্তার স্বাক্ষরিত প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

প্রসঙ্গত, গত ১১ জানুয়ারি বিভাগে কোভিড শনাক্তের হার ছিল ১১.৭২%।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রতিবেদনে বলা হয়, শনিবার (১৫ জানুয়ারি) সকাল ৮টা থেকে রবিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত রাজশাহী বিভাগের সাত জেলায় ৫৭২ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এতে কোভিড শনাক্ত হয়েছে ৭৯ জনের। নমুনা পরীক্ষা অনুপাতে শনাক্তের হার ১৩.৮১%। এর আগের ২৪ ঘণ্টায় ৮৩৩ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৫০ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। নমুনা পরীক্ষার অনুপাতে শনাক্তের হার ছিল ৬%। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় বিভাগে নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা কমলেও শনাক্তের হার ও পরিমাণ বেড়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন সংক্রমিত ৭৯ জনের মধ্যে বগুড়ায় সর্বোচ্চ ২৫, রাজশাহীতে ২২, নওগাঁয় ৮, নাটোর ও পাবনায় ৭ জন করে এবং জয়পুরহাট ও সিরাজগঞ্জে ৫ জন করে রয়েছেন। এদিন নমুনা পরীক্ষা না হওয়ায় চাঁপাইনবাবগঞ্জে কারও করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়নি। নতুন সংক্রমিত ৭৯ জন নিয়ে বিভাগে মোট করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ৫০৬ জনে।

রাজশাহী বিভাগে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৯৬,৫৫১ জন। এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ১,৬৯৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ২০ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

রাজশাহী বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (রোগনিয়ন্ত্রণ) নাজমা আক্তার জানান, রাজশাহী বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার বেশি। এবার করোনাভাইরাসের সংক্রমণ দ্রুত ছড়াচ্ছে। এ অবস্থায় সরকারের দেওয়া নির্দেশনা মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে, রাজশাহী নগরীতে করোনাভাইরাসের নতুন ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণ নিয়ে বিশেষজ্ঞরা চিন্তিত হলেও সাধারণ মানুষ স্বাস্থ্যবিধি নিয়ে তেমন উদ্বিগ্ন নয়। রাস্তায় বের হলে অনেকের মাস্ক থাকছে না। আবার মাস্ক থাকলেও তা  সঠিক নিয়মে পরছেন না কেউ। নগরীতে দুরপাল্লার বাসসহ অভ্যান্তরীণ ছোট পরিবহণ অটোরিকশা, চার্জার রিকশাসহ প্রাইভেট গাড়িতে স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ওমিক্রন মোকাবেলায় রামেক হাসপাতাল পুরোপুরি প্রস্তুত রয়েছে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কমে যাওয়ার কারণে হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে রোগীর সংখ্যাও একেবারেই কমে গিয়েছিলো। কিন্তু গত কয়েকদিন থেকে রামেক হাসপাতালে আক্রান্ত কিংবা সাসপেক্টেড রোগীর সংখ্যা বাড়ছে।

রামেক হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ড সূত্রে জানা যায়, হাসপাতালে জানুয়ারি মাসের প্রথম ১২ দিনে ৬২ জন ভর্তি হয়েছে। ভর্তি হওয়া রোগীর মধ্যে নারী ৩২ জন ও ৩৫ জন পুরুষ। এ সময় ৪ জনের মৃত্যু হয়, যাদের মধ্যে ৩ জন পুরুষ ও একজন নারী। এছাড়া, বুধবার (১২ জানুয়ারি) বেলা ২টা পর্যন্ত সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী মোট ২২ জন করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। 

রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, করোনাভাইরাসের ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের চেয়ে ওমিক্রন ৫ গুণ কম ক্ষমতাসম্পন্ন বলে ধারণা করা হচ্ছে। কিন্তু এটি দ্রুত বাতাস কিংবা অন্য কোনো মাধ্যমে ছড়িয়ে যায়। এজন্য এটি সবচেয়ে বেশি ভয়ের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। সঙ্গত কারণেই রামেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটকে ওমিক্রন মোকাবেলায় প্রস্তুত রাখা হয়েছে। কেননা, হয়তো অদূর ভবিষ্যতে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের মত দ্রুত ছড়িয়ে যেতে পারে।

তিনি আরও জানান, হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে প্রায় ৭০০ সেন্ট্রাল অক্সিজেন লাইন রয়েছে। হাইফ্লোনেজাল ক্যানুলা রয়েছে, অক্সিজেন কনসান্ট্রেটর রয়েছে ৩০০ টি। ১৪০০টি অক্সিজেন সিলিন্ডার এবং ২৪টি বাইপেপ রয়েছে। তছাড়া ১ হাজার লিটারের একটি ভিআই ট্যাংক রয়েছে। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে এই ভিআই ট্যাংকটির ধারণক্ষমতা ৩ হাজার লিটারে উন্নীত করা হবে।

রামেক হাসপাতাল পরিচালক পরিচালক জানান, আপাতত করোনা ওয়ার্ডে (২৯ ও ৩০ নম্বর ওয়ার্ড) প্রশিক্ষিত ১৬ সদস্যের ২টি চিকিৎসক টিম কাজ করছে। এছাড়া, করোনা ক্যাবিনে ১২ জন ডাক্তার চিকিৎসাসেবা চালিয়ে যাচ্ছেন। পর্যাপ্ত নার্সও সেখানে দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করছে। ওমিক্রনের সংক্রমণ বেড়ে গেলে সেখানে প্রয়োজন অনুযায়ী ডাক্তার-নার্স সংযোজন করা হবে।

রাজশাহীর সিভিল সার্জন ডা. কাইয়ুম তালুকদার জানান, করোনাভাইরাস আক্রান্তের হার বিবেচনায় রাজশাহী ইয়েলো জোনে রয়েছে। আক্রান্তের হার যাতে বাড়তে না পারে সেজন্য সকল ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে। এছাড়া, ওমিক্রন মোকাবিলায় আগে থেকেই বাড়তি সতকর্তা অবলম্বন করা হচ্ছে।

করোনাভাইরাস

দেশে আরও ২২ জনের ওমিক্রন শনাক্ত

এ নিয়ে দেশে ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৫ জনে 

প্রকাশিত: ১১:২৬ দুপুর জানুয়ারি ১৭, ২০২২

বাংলাদেশে আরও ২২ জনের দেহে করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রন শনাক্ত হয়েছে। 

এ নিয়ে রবিবার (১৭ জানুয়ারি) পর্যন্ত ওমিক্রনে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৫৫ জনে দাঁড়িয়েছে। গ্লোবাল ইনিশিয়েটিভ অন শেয়ারিং অল ইনফ্লুয়েঞ্জা ডেটা (জিআইএসএআইডি) এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর ডাইরিয়াল ডিজিজ রিসার্চ, বাংলাদেশ, (আইসিডিডিআর,বি) এর দেওয়া তথ্যের ওপর ভিত্তি করে জিআইএসএআইডি এ ফলাফল পেয়েছে।

এর আগে ১০ জানুয়ারি দেশে তিনজন নতুন ওমিক্রন রোগী শনাক্ত হয়েছিল।

১১ ডিসেম্বর দেশে প্রথমবারের মতো ওমিক্রন শনাক্ত হয়। এ দিন জিম্বাবুয়ে ফেরত বাংলাদেশি দুই নারী ক্রিকেটার ওমিক্রনে আক্রান্ত হন।

এদিকে, রবিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, দেশে মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও আট জনের মৃত্যু হয়েছে এবং শনাক্ত হয়েছে আরও পাঁচ হাজার ২২২ জন। এ নিয়ে দেশে এখন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৮ হাজার ১৪৪ জনে। মোট শনাক্তের সংখ্যা ১৬ লাখ ১৭ হাজার ৭১১ জনে পৌঁছেছে।

কোভিড টিকার জন্য ‘এসি কিনতে’ শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ফি আদায়

পাবনার বেড়া উপজেলার ঢালারচর উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে টিকা নিতে আসা শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে কোভিড টিকা দেওয়ার জন্য ‘এয়ার কন্ডিশনার কেনা বাবদ’ ফি নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে

প্

রকাশিত: ১১:৩২ রাত জানুয়ারি ১৬, ২০২২

পাবনার বেড়া উপজেলার ঢালারচর উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে টিকা নিতে আসা শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে কোভিড টিকা দেওয়ার জন্য “এয়ার কন্ডিশনার কেনা বাবদ” ফি নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অনেক অভিভাবক।

রবিবার (১৬ জানুয়ারি) এ তথ্য জানিয়েছেন বেড়া উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা খবির উদ্দিন। বিডি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ঢালারচর উচ্চবিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থীর অভিভাবক বলেন, “সারা দেশে

সরকার বিনামূল্যে করোনাভাইরাসের টিকা দিচ্ছে। কিন্তু ঢালারচর উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষকরা ৬০ থেকে ১০০ টাকা করে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে নিচ্ছেন। কেউ প্রতিবাদ করলে ভয় দেখিয়ে শিক্ষকরা টাকা নিয়ে টিকা দেন।”

শিক্ষার্থীরা বলেন, “আমরা বিষয়টি নিয়ে প্রতিবাদ করলে স্যারেরা ভয়ভীতি দেখান। পরে বাধ্য হয়ে টাকা দিয়ে টিকা নেই।”

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঢালারচর উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রশিদ বলেন, “আমাদের বিদ্যালয়ে প্রায় এক হাজার ১০০ শিক্ষার্থী রয়েছে। তাদেরকে টিকা নিতে যেতে হবে কাশিনাথপুর বা বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। এতে প্রত্যেক শিক্ষার্থীর কমপক্ষে ৩০০ টাকা করে খরচ হবে। এছাড়াও যাতায়াতের ঝক্কি তো আছেই।”

তিনি আরও বলেন, “তাই বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি ও স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকেও অবহিত করা হয়েছে।”

রধান শিক্ষক বলেন, “টিকা কার্যক্রম পরিচালনা করার জন্য এসি কিনতে ১ লাখ ১২ হাজার টাকা খরচ হবে। এর মধ্যে ২৫ হাজার টাকা ইতোমধ্যে পরিশোধ করা হয়েছে। বাকি টাকা শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে নিয়ে পরিশোধ করা হবে।”

বেড়া উপজেলার শিক্ষ কর্মকর্তা খবির উদ্দিন এ বিষয়ে বলেন, “টাকা আদায়ের বিষয়টি বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আমাকে জানিয়েছে।” তবে এটি টিকা ফি নয় বলেও দাবি করেন তিনি।

বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ফাতেমাতুজ জান্নাত বলেন, “ফাইজারের টিকা এসি রুমে দেওয়ার নিয়ম আছে। তবে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কেন টাকা নিচ্ছে তা আমার জানা নেই।”

এ বিষয়ে পাবনা জেলা প্রশাসক বিশ্বাস রাসেল হোসেন বলেন, “এমন অভিযোগ পাইনি। পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

করোনাভাইরাস

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হওয়ার গুজবে কান না দেওয়ার আহ্বান শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির বরাত দিয়ে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনির্দিষ্টকালের জন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের কথা বলা হচ্ছে, যা একটি গুজব

প্রকাশিত: ১০:০৩ রাত জানুয়ারি ১৬, ২০২২

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ নিয়ে গুজবে কান না দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

শনিবার (১৫ জানুয়ারি) মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা এম এ খায়ের স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির বরাত দিয়ে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনির্দিষ্টকালের জন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের কথা বলা হচ্ছে। যা একটি গুজব। শিক্ষামন্ত্রী এই সংক্রান্ত কোনো বক্তব্য সাম্প্রতিক সময়ে দেননি।

এতে আরও বলা হয়, করোনাভাইরাসের সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির প্রেক্ষিতে সরকার নিয়মিত পরিস্থিতি মনিটর করছে। করোনাভাইরাস সংক্রান্ত জাতীয় পরামর্শক কমিটির সঙ্গে আবার মিটিং করা হবে। তারপর এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। সরকার এই মুহুর্তে শিক্ষার্থীদের টিকাদান নিশ্চিত করার বিষয়ে সর্বাধিক গুরুত্ব দিচ্ছে।

এছাড়া এই সংক্রান্ত কোনো রকমের গুজবে কান না দিতে এবং আগাম তথ্য প্রদান থেকে বিরত থাকতে সকলকে অনুরোধ করা হয় এই বিবৃতিতে।

করোনাভাইরাস

সর্বশেষ
জনপ্রিয়