ঢাকা, রোববার   ২৬ জুন ২০২২ ||  আষাঢ় ১২ ১৪২৯

তিনি আসলে পুরুষ জানতে পারলেন ২০ বছর পর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:৪৩, ২৩ মে ২০২২  

রান্ডা

রান্ডা

দীর্ঘ ২০ বছর পর সৌদি আরবের এক নাগরিক জানতে পেরেছেন তিনি আসলে নারী নন, পুরুষ। মূলত জন্মের পর তার শারীরিক গঠন মেয়ে শিশুর মতো দেখা যাওয়ায় চিকিৎসকেরা তার লিঙ্গ নির্ধারনে ভুল করে বসে। কিন্তু দীর্ঘ ২০ বছর পর জানা গেল তার পুরুষাঙ্গ বিশেষ কায়দায় পেটের মধ্যে লুকিয়ে রয়েছে।

সংবাদমাধ্যম সৌদি গেজেটের প্রতিবেদনে জানানো হয়, সৌদি আরবের রিয়াদে এক সরকারি হাসপাতালে তার জন্ম। তাকে মেয়ে শিশু মনে করায় পরিবারের পক্ষ থেকে তার নাম রাখা হয় রান্ডা।  কিন্তু বিপত্তি দেখা দেয় যখন সে বড় হতে থাকে। বড় হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তার শরীরে মেয়েদের কোনো গঠন দেখা যায়নি। এরপরই তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে ডাক্তার বুঝতে পারেন রান্ডা আসলে কোনো মেয়ে নয়, বরং সে ছেলে।

পুরুষ হওয়ার কথা শোনার পর রান্ডা বলেন, আমি শুরুতে বিশ্বাস করতে পারছিলাম না। আমার কাছে মনে হয়েছে ডাক্তার মিথ্যা বলছে। এটা ছিল আমার কাছে পুনঃজন্মের মতো। কারণ এখন আমার নাম আবার নতুন করে রাখতে হবে। কারণ একটি নতুন নাম, নতুন একটি পরিচয়।

রান্ডা আরো বলেন, আমার পেটের মধ্যে পুরুষাঙ্গটি বিশেষ কায়দায় লুকিয়ে আছে। এটি ঠিক করার জন্য ডাক্তার আমাকে যুক্তরাজ্যে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। সেখানে গিয়ে অপারেশন করতে হবে।

রিয়াদের সরকারি হাসপাতাল এমন ভুল করায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে অভিযোগ জানিয়েছে রানডার পরিবার। কিন্তু মন্ত্রণালয় থেকে কোনো পদক্ষেপ নেয়া হয়নি। এ বিষয়ে রান্ডার বাবা বলেন, ওই 

সর্বশেষ
জনপ্রিয়