ঢাকা, বুধবার   ০৭ ডিসেম্বর ২০২২ ||  অগ্রাহায়ণ ২৩ ১৪২৯

সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে সাতটি গবেষণাগার উদ্বোধন

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৩:২৬, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২  

সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে সাতটি গবেষণাগার উদ্বোধন

সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে সাতটি গবেষণাগার উদ্বোধন

সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (সিকৃবি) গবেষণার মানোন্নয়নে নতুন করে এক কোটি ৯০ লাখ ৫০ হাজার টাকার সাতটি গবেষণাগার উদ্বোধন করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. মতিয়ার রহমান হাওলাদার। 

সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টায় মৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের একুয়াকালচার বিভাগের গবেষণাগার, সকাল সাড়ে ১০টায় কৃষি অনুষদের মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিভাগের গবেষণাগার, এছাড়াও ১২টায় ভেটেরিনারি, এনিম্যাল ও বায়োমেডিক্যাল সায়েন্সেস অনুষদের সার্জারি ও থেরিওজেনোলজি বিভাগ, এনাটমি ও হিস্টোলজি বিভাগ, জেনেটিক্স অ্যান্ড এনিম্যাল ব্রিডিং বিভাগ, মাইক্রোবায়োলজি অ্যান্ড ইমিউনলজি বিভাগ এবং ফার্মাকোলজি অ্যান্ড টক্সিকোলজি বিভাগসহ মোট সাতটি বিভাগের আধুনিক সুবিধাসংবলিত গবেষণাগার উদ্বোধন করা হয়। 

সাতটি বিভাগের বিভাগীয় চেয়ারম্যানদের দেওয়া তথ্য মতে, গবেষণাগার সজ্জাসহ যন্ত্রপাতি ক্রয়ে একুয়াকালচার বিভাগ বরাদ্দকৃত ২৮ লাখ ৫০ হাজার টাকা খরচ করেছে। এছাড়াও মৃত্তিকাবিজ্ঞান বিভাগ গবেষণাগার সজ্জাসহ চারটি যন্ত্র ক্রয় ও পুরাতন যন্ত্রপাতি মেরামতে বরাদ্দকৃত ২৫ লাখ টাকা, সার্জারি ও থেরিওজেনোলজি বিভাগ গবেষণাগার সজ্জা ও ৬টি নতুন যন্ত্রপাতির বিপরীতে ২৫ লাখ টাকা, এনাটমি ও হিস্টোলজি বিভাগ গবেষণাগার সজ্জা ও ৭টি যন্ত্রপাতির বিপরীতে ২৫ লাখ টাকা, জেনেটিক্স অ্যান্ড এনিমেল ব্রিডিং বিভাগ গবেষণাগার সজ্জা ও ৯টি যন্ত্রপাতি বাবদ ২৭ লাখ টাকা, মাইক্রোবায়োলজি অ্যান্ড ইমিউনলজি বিভাগ গবেষণাগার সজ্জা ও ২টি যন্ত্রপাতি সংযোজনসহ ৩৫ লাখ টাকা এবং ফার্মাকোলজি অ্যান্ড টক্সিকোলজি বিভাগ গবেষণাগার আধুনিকায়ন ও ৮টি নতুন যন্ত্রপাতি বাবদ ২৫ লাখ টাকাসহ ৭ বিভাগে মোট ১ কোটি ৯০ লাখ ৫০ হাজার টাকা খরচ করেছে।

গবেষণাগার উদ্বোধন পরবর্তী সভায় উপাচার্য ড. মো. মতিয়ার রহমান হাওলাদার বলেন, দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে কিভাবে বিশ্ববিদ্যালয়কে গতিশীল করা যায় সেই কাজ করে গেছি। বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণাগারের সঙ্কট আমি উপলব্ধি করেছি, গবেষণায় এই বিশ্ববিদ্যালয়কে এগিয়ে নিতে এই গবেষণাগারগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। আমাদের দক্ষ মানুষের অভাব রয়েছে। তাই শিক্ষার্থীদের দক্ষতা উন্নয়নের ওপর বিশেষ গুরুত্ব দেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

এসময় তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশে যদি ভালো গবেষণা হয় তাহলে তা হয় কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে। এরই গর্বিত অংশীদার হতে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা কাজ করে যাচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় বিশ্ববিদ্যালয়ে ধারাবাহিকভাবে গবেষণাগার উন্নয়ন করা হচ্ছে। উচ্চতর ডিগ্রি নিয়ে যে শিক্ষকরা বিদেশ থেকে আসেন তারা যাতে প্রয়োজনীয় সরঞ্জামের অভাবে গবেষণা থেকে মুখ সরিয়ে না নেন সেই জন্য এই ল্যাবগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলেও জানান তিনি। 

একুয়াকালচার বিভাগের গবেষণাগার উদ্বোধন পরবর্তী সভায় মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মৃত্যুঞ্জয় কুণ্ড বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে জ্ঞান সৃষ্টি করা হয়। আর জ্ঞান সৃষ্টি করতে গবেষণাগার প্রয়োজন হয়। তিনি প্রত্যাশা ব্যক্ত করে আরো বলেন, অদূর ভবিষ্যতে গবেষণায় বিশ্বের মধ্যে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় শক্ত জায়গা করে নিবে।

এছাড়াও কচুরিপানা কিভাবে মাছের খাদ্য হিসেবে ব্যবহার করা যায় তা নিয়ে এই গবেষণাগারে কাজ হচ্ছে বলে জানান বিভাগটির গবেষকবৃন্দ। 

অন্যদিকে কৃষি অনুষদের ডিন মৃত্তিকাবিজ্ঞান বিভাগের গবেষণাগার উদ্বোধন পরবর্তী আলাদা এক সভায় বলেন, এ বিশ্ববিদ্যালয় গবেষণায় এগিয়ে যাচ্ছে। উপাচার্যের সহযোগিতায় কৃষি অনুষদের প্রায় সব বিভাগের গবেষণার তৈরি করা হয়েছে। এখন আমাদের গবেষণায় মনোনিবেশ করতে হবে। এসময় উপস্থিত ছিলেন বিভাগটির চেয়ারম্যান সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. মোশাররফ হোসেন সরকার, অধ্যাপক ড. মো. আবুল কাশেমসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকবৃন্দ। 

পরবর্তীতে ভেটেরিনারি, এনিম্যাল ও বায়োমেডিকেল সায়েন্সেস অনুষদের পাঁচটি গবেষণাগার উদ্বোধনের পর অনুষদটির ডিন অধ্যাপক ড. এম. রাশেদ হাসনাত বলেন, আমার অনুষদে ১৪টি বিভাগ রয়েছে। এর মধ্যে ১২টি বিভাগে পোস্ট গ্রাজুয়েট গবেষণাগার তৈরি করা হয়েছে। 

গবেষণাগারগুলো উদ্বোধনের সময় উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন অনুষদের ডিন, ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা দফতরের পরিচালক, প্রক্টর, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় রিসার্চ সিস্টেমের পরিচালক, অন্যান্য শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। 

সর্বশেষ
জনপ্রিয়