ঢাকা, বুধবার   ১৭ আগস্ট ২০২২ ||  ভাদ্র ২ ১৪২৯

খালেদের দুর্দান্ত বোলিংয়ে অপেক্ষা বাড়ল উইন্ডিজের

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৯:৫৩, ১৯ জুন ২০২২  

খালেদ আহমেদ

খালেদ আহমেদ

অ্যান্টিগা টেস্টের তৃতীয় দিনের খেলায় ৮৪ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশি পেসার খালেদ আহমেদের দুর্দান্ত বোলিংয়ে শুরুতেই তিন উইকেট হারিয়েছে স্বাগিতক ওয়েষ্ট ইন্ডিজ। তাতেও তাদের চাপে ফেলতে পারেনি টাইগাররা। জয়ের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছাতে খানিক অপেক্ষা বেড়েছে মাত্র। তৃতীয় দিন শেষে ৩ উইকেটে ৪৯ রান তুলেছে ক্যারিবীয়রা। ফলে জয়ের জন্য আর দরকার ৩৫ রান। হাতে রয়েছে সাত উইকেট।

রান তাড়া করতে নামা ওয়েস্ট ইন্ডিজের শুরুটা ভালো হতে দেননি টাইগার পেসার খালেদ আহমেদ। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলে ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট ও পঞ্চম বলে রেইমন রেইফারকে সাজঘরে পাঠান তিনি। আউট হওয়ার আগে ১ রান করেন উইন্ডিজ দলনেতা ব্র্যাথওয়েট, ২ রান করেন রেইফার। আর নিজের করা দ্বিতীয় ওভারে শূন্যরানেই এনক্রমাহ বোনারকে ফেরান খালেদ।

মাত্র ৯ রানে তিন উইকেট হারিয়ে খানিকটা চাপেই পড়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। চতুর্থ উইকেটে ক্যাম্পবেল ও ব্ল্যাকউডের ব্যাটে চাপ সামলে দল। শেষ পর্যন্ত আর কোনো উইকেট হারাতে হয়নি। ২৮ রানে ক্যাম্পবেল ও ১৭ রানে ব্ল্যাকউড অপরাজিত রয়েছেন।

এর আগে তৃতীয় দিনের শুরুতে ব্যাট করতে নামেন আগের দিনের দুই অপরাজিত ব্যাটার মাহমুদুল হাসান জয় ও নাজমুল হোসেন শান্ত। দিনের শুরুতে দেখে-শোনেই খেলছিলেন তারা। কিন্তু বেশিক্ষণ ক্রিজে থাকতে পারেননি শান্ত। কাইল মেয়ার্সের করা বলে মাত্র ১৭ রানে জন ক্যাম্পবেলের হাতে ক্যাচ তুলে দেন তিনি। আর পরের উইকেটে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ৪ রানে ফেরেন মুমিনুল। এবারও ঘাতক সেই মেয়ার্স। লিটনের ব্যাট থেকে এসেছে ১৭ রান।

এদিকে শুরু থেকেই ধৈর্য্যের পরীক্ষা দিয়ে আসছিলেন ওপেনার মাহমুদুল হাসান জয়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত থেমেছেন ৪২ রানে। কেমার রোচের করা বলে কটবিহাইন্ড হন তিনি। ১৫৩ বলে খেলা ইনিংসটি তিনটি চারে সাজানো।

সপ্তম উইকেট জুটিতে উইকেটকিপার ব্যাটার নুরুল হাসান সোহানকে সঙ্গে নিয়ে খুঁটি গেড়ে ব্যাট করে যান দলনেতা সাকিব আল হাসান। এ সময় দুজন মিলে গড়েন এখন পর্যন্ত দুজন মিলে গড়েছেন ১২৩ রানে জুটি। সাকিব তুলে নিয়েছেন ব্যক্তিগত অর্ধশতক। এরপর কেমার রোচের করা বলে ব্যক্তিগত ৬৩ রানে ফেরেন সাকিব। ৯৯ বলে খেলা ইনিংসটি ছয়টি চারে সাজানো।

সাকিব আল হাসানের পর এবার রোচের শিকার নুরুল হাসান সোহান। তার ব্যাক অব লেন্থের বল সোহানের ব্যাটের কানায় লেগে যায় উইকেটের পেছনে। বাংলাদেশের শেষ আশা তালুবন্দি হয় ডা সিলভার গ্লাভসে। আউট হওয়ার আগে ব্যক্তিগত অর্ধশতক পূর্ণ করে ৬৪ রান করেন সোহান। আর ব্যাট করতে নেমেই ছক্কা মারেন মোস্তাফিজুর রহমান। এরপর একটি সিঙ্গেল নিয়ে আলযারি জোসেফের বলে বোল্ড আউট হন তিনি। এরপর ১ রানে আউট হন ইবাদত। আর শূন্যরানে অপরাজিত থাকেন খালেদ।

এদিকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে দশম ফাইফার পূর্ণ করেন পেসার কেমার রোচ। সেই সঙ্গে আন্তর্জাতিক টেস্ট ক্রিকেটে ক্যারিবিয়ানদের হয়ে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারির তালিকায় কিংবদন্তি ক্রিকেটার মাইকেল হোল্ডিংকে স্পর্শ করলেন তিনি। রোচের পাঁচ উইকেট ছাড়াও আলযারি জোসেফ তিনটি ও কাইল মেয়ার্স দুটি উইকেট নেন।

আর ম্যাচের শুরুতে ব্যাট করতে নেমে সাকিব আল হাসানের ফিফটির পরও সবকটি উইকেট হারিয়ে মাত্র ১০৩ রা সংগ্রহ করেছে বাংলাদেশ দল। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইনিংস থেমেছে ২৬৫ রানে। ফলে ১৬২ রানের লিড পায় স্বাগতিকরা।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়