ঢাকা, বুধবার   ২৭ অক্টোবর ২০২১ ||  কার্তিক ১১ ১৪২৮

সিনোফার্ম-সিনোভ্যাক টিকার তৃতীয় ডোজ দিতে সুপারিশ করেছে ডব্লিউএইচও

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৯:০৬, ১৩ অক্টোবর ২০২১  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

চীনের তৈরি সিনোফার্ম এবং সিনোভ্যাকের করোনা টিকা নেয়া ৬০ বছরের বেশি বয়সীদের তৃতীয় ডোজ দেওয়ার সুপারিশ করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। এছাড়া যাদের রোগ প্রতিরোধক্ষমতা দুর্বল তাদের ক্ষেত্রেও তৃতীয় ডোজের কথা বিবেচনা করতে বলেছে তারা।

সংস্থাটির টিকাবিষয়ক উপদেষ্টারা এ সুপারিশ করেন। ডব্লিউএইচওর টিকাদান বিষয়ে বিশেষজ্ঞদের নীতিনির্ধারণী দল স্ট্র্যাটেজিক অ্যাডভাইজারি গ্রুপ অব এক্সপার্টস অন ইমিউনাইজেশন (এসএজিই) বলেছে, ৬০ বছরের বেশি বয়সী যারা সিনোভ্যাক ও সিনোফার্মের টিকা নিয়েছেন, তাদের তৃতীয় ডোজ টিকা নেয়া উচিত।

তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, তারা বড় পরিসরে জনগণের সবাইকে বুস্টার ডোজ টিকা দেওয়ার সুপারিশ করছেন না। যাদের বয়স ৬০ বছরের বেশি এবং যাদের রোগ প্রতিরোধক্ষমতা দুর্বল শুধু তাদের ক্ষেত্রেই এই বুস্টার ডোজ টিকার সুপারিশ করা হয়েছে।

করোনাভাইরাস মহামারির সময় ফাইজার-বায়োএনটেক, জনসন, মডার্না, সিনোফার্ম, সিনোভ্যাক, অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা জরুরি ব্যবহারের জন্য ডব্লিউএইচওর অনুমোদন পেয়েছে।

ভারত বায়োটেক টিকাও জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন পাওয়ার তালিকায় রয়েছে। গত সপ্তাহে এসএজিই টিকা, কোভিড–১৯ ও অন্যান্য রোগ নিয়ে চার দিনের বৈঠক করে।

এসএজিই বলছে, যাদের রোগ প্রতিরোধক্ষমতা কম এবং যারা বয়স্ক, তারা করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হলে ঝুঁকি বেশি থাকে।

এসএজিই আরো বলছে, সিনোভ্যাক বা সিনোফার্মের টিকার সরবরাহ কম থাকলে আলাদা টিকা তৃতীয় ডোজ হিসেবে দেওয়া যেতে পারে। তবে বিভিন্ন দেশে প্রথম দুই ডোজ টিকা দেওয়ার ওপর বেশি গুরুত্ব দিতে হবে। এরপর বয়স্ক ব্যক্তিদের তৃতীয় ডোজ টিকা দেওয়ার কথা ভাবতে হবে।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়