ঢাকা, সোমবার   ১৯ এপ্রিল ২০২১ ||  বৈশাখ ৬ ১৪২৮

শিশুবক্তা রফিকুল রাষ্ট্রবিরোধী বক্তব্য দিয়ে উসকানি দেন

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:২৩, ৮ এপ্রিল ২০২১  

ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

রাষ্ট্রবিরোধী উসকানিমূলক ও ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য এবং বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অভিযোগে শিশুবক্তা নামে খ্যাত মাওলানা রফিকুল ইসলাম মাদানীকে আটক করেছে র‍্যাব। বুধবার নেত্রকোনা থেকে তাকে আটক করা হয়। এর আগে চলতি সপ্তাহে তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলায় একটি মাহফিলে অংশগ্রহণ করেন। জানা যায়, মাওলানা রফিকুল ইসলাম রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে জিহাদ করার জন্য হেফাজত নেতাদের চাপ দিতেন। এমনকি রাষ্ট্রবিরোধী উসকানিমূলক বক্তব্য দিয়ে বিধর্মীদের হত্যা করা জায়েজ বলেও মনে করতেন।

‘Rafiqul Islam Netrokona’ নামের পেজে শেয়ার দেওয়া এক ভিডিওতে তাকে বলতে শোনা যায়, তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়াকে শহিদবাড়িয়া বলছেন। তিনি একজনকে পরিচয় করিয়ে দিতে গিয়ে বলেন, ওনি শহিদবাড়িয়া শুধু নয়, গোটা বাংলাদেশের একজন স্বনামধন্য মুরুব্বি। এ ছাড়াও মাহফিলে বক্তব্য দেওয়ার সময় একপর্যায়ে তিনি বলেন, আত্মপ্রচারণা পছন্দ করি না। ভাইরাল হওয়ার জন্য কেউ পিস্তলের সামনে যায়! বন্দুকের নলার সামনে যায়? … আমরা তো ভাইরাল হওয়ার জন্য বন্দুকের নলার সামনে যাই না। বন্দুকে নলার সামনে জান্নাত দেখা জাতি আমরা। বন্দুকের নলার মধ্যে মৃত্যু দেখি না। জান্নাত দেখি।

‘শিশুবক্তা’ রফিকুল আরো বলেন, আমি রফিকুল ইসলাম আগামীকাল যদি কোনো খারাপ কাজ করি- যেটা ইসলামের সঙ্গে, শরিয়াহর সঙ্গে যায় না; তাহলে আগামীকাল আমাকে টিস্যুর মতো ছুড়ে ফেলে দেবেন। এক মিনিটও চিন্তা করবেন না।

তিনি বলেন, বউ নিয়ে বেড়াতে যাওয়াটা রসুল (সা.) সুন্নাহ। এই রাষ্ট্রে বউ নিয়ে এক জায়গায় ঘুরতে গেলেও নিরাপত্তা পাওয়া যাবে না। এটা তো ওনার দোষ না। আমি মনে করি, রাষ্ট্র এবং এই সংবিধান, এই সিস্টেম, সমাজের দোষ এগুলো।

এই ‘শিশুবক্তা’ আরো বলেন, ইসলাম মামুনুল হক সাহেবের কাছে দায়বদ্ধ নয়, বাবুনগরী সাহেবের কাছে দায়বদ্ধ নয়। মামুনুল হক সাহেব, বাবুনগরী সাহেব, রফিকুল ইসলাম না থাকলে ইসলাম চলবে না, বিষয়টি এমন নয়। ইসলাম কেয়ামতের আগ পর্যন্ত বহাল তবিয়তে থাকবে।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়