ঢাকা, রোববার   ২১ জুলাই ২০২৪ ||  শ্রাবণ ৫ ১৪৩১

রাজশাহীতে গণহত্যা জাদুঘরে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক সেমিনার

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:৪৩, ১৯ জানুয়ারি ২০২২  

সংগৃহীত

সংগৃহীত

রাজশাহীতে গণহত্যা জাদুঘরে দিনব্যাপী মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) ‘হিস্টোরি ফরম বিলো: ম্যামোরিয়ালাইজেশন, ডিজিটালাইজেশন অ্যান্ড হিসট্রোগ্রাফি অব জেনোসাইড’ শীর্ষক এই সেমিনার হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন হেরিটেজ আর্কাইভের প্রতিষ্ঠাতা ড. মো. মাহবুবর রহমান।

প্রথম অধিবেশনে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন গণহত্যা জাদুঘরের ট্রাস্টি সম্পাদক ড. চৌধুরী শহীদ কাদের। প্রাবন্ধিক গণহত্যার জন-ইতিহাসের গুরুত্ব তুলে ধরার পাশাপাশি গণহত্যার প্রচলিত ইতিহাস চর্চা ও পদ্ধতির দুর্বলতাগুলো তুলে ধরেন তিনি।

ড. চৌধুরী শহীদ কাদের বলেন, ইতোমধ্যে গণহত্যা জাদুঘর জেলা জরিপ, গণহত্যা নির্ঘণ্টের কাজ করেছে। এই কাজ এখনো চলমান। এর মাধ্যমে গণহত্যার যে ইতিহাস এতদিন মানুষের মনে লুকিয়ে ছিল, যা মূলধারার ইতিহাস গ্রন্থে ঠাই পায়নি সেটা ফুটে উঠছে। গণহত্যা সংঘটিত হওয়ার প্রায় ৫০ বছর পর এই কাজ দুরূহ। তবু জাদুঘরের প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত গবেষকরা দেশের আনাচে-কানাচে ছড়িয়ে পড়ছে, তুলে আনছে সেই হৃদয়বিদারক দুঃখ গাঁথা।

প্রবন্ধের ওপর আলোচনা করেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের চেয়ারম্যান ড. হাসিবুল আলম প্রধান। তিনি পাকিস্তানি গণহত্যাকারীদের বিচারের আওতায় নিয়ে আসার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন।

রাজশাহী বঙ্গবন্ধু কলেজের উপাধ্যক্ষ মো. কামরুজ্জামান বলেন, সরকার বদলের সঙ্গে সঙ্গে এখানে ইতিহাস বিকৃতি শুরু হয়। এটার বিরুদ্ধে সবাইকে সরব থাকতে হবে।

অনুষ্ঠানে সঞ্চালনার দায়িত্ব পালন করেন ড. হোসনে আরা খানম, সহযোগী অধ্যাপক, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়।

আরও আলোচনা করেন- গবেষক এনামুল হক, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক সাজ্জাদ বকুল, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রাফিক ডিজাইন, ক্রাফট অ্যান্ড হিস্ট্রি অব আর্টস বিভাগের অধ্যাপক সুভাষ চন্দ্র সুতার।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়